আবহাওয়া বিশ্বঘড়ি মুদ্রাবাজার বাংলা দেখা না গেলে                    
শিরোনাম :
উবার ও পাঠাও-এর মতো অ্যাপ নির্ভর পরিবহন সেবা বন্ধের দাবীতে মিরপুরস্থ বিআরটিএ কার্যালয় ঘেরাও      ব্র্যাকসহ ২০টি আন্তর্জাতিক বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থাকে পাকিস্তান ছাড়তে ৬০ দিনের আল্টিমেটাম      ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ ও ঢাকা-মুন্সিগঞ্জ সড়কে তীব্র যানজট: ২০ কিলোমিটার জট      এখন বিদ্যুৎ উৎপাদন হচ্ছে ১৬ হাজার মেগাওয়াট : প্রধানমন্ত্রী      সরকারের ঘোষনা ডিসেম্বর থেকে দাম বৃদ্ধি: নভেম্বর থেকেই নেওয়া হচ্ছে বাড়তি বিদ্যুতের বিল!      র‌্যাব রীতিমতো ছোটখাটো যুদ্ধক্ষেত্রের মধ্য দিয়ে আমাকে তাদের গাড়িতে ওঠায়: ফরহাদ মজহার      থানা চত্ত্বরে ৬ মাসের সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামীকে মঞ্চে নিয়ে এমপি রতনের সমাবেশ!      
নির্মাণ শিল্পে অভুতপূর্ব সংযোজন নাহি’র এলুমনিয়াম কম্পোজিট প্যানেল
Published : Sunday, 3 December, 2017 at 10:19 PM
নির্মাণ শিল্পে অভুতপূর্ব সংযোজন নাহি’র এলুমনিয়াম কম্পোজিট প্যানেল    অর্থনৈতিক প্রতিবেদকঃ দেশের শিল্পখাতে সময়োপযোগী নতুন সংযোজনের মধ্যে নাহি গ্র“পের এলুমনিয়াম কম্পোজিট সিট এলুকো টাইগার অন্যতম। এই উপকরণটি নির্মাণ প্রকৌশল খাতে অভুতপূর্ব ধারা যুক্ত করেছে। রংয়ের বিকল্প তাপ প্রতিরোধক এটি ব্যবহারে একটি ভবনের পুরো চেয়ারাটাই পাল্টে যায়। যে কারণে ক্রমে ব্যপক হারে অভিজাত ভবনের বাইরে বাড়ছে এলুমনিয়াম কম্পোজিট প্যানেলের ব্যবহার।
এলুমনিয়াম কম্পোজিট সিট হচ্ছে বিল্ডিংয়ের ওয়ালে ব্যবহার উপযোগী বিভিন্ন সাইজের সীট। এটি তৈরি দুই দিকে এলুমনিয়াম এবং মাঝখানে প্লাস্টিকের প্যানেলের সমন্বয়ে। বিভিন্ন সাইজ এবং হরেক কালারের সাথে এই সিটের রয়েছে নির্ধারিত পুরত্ব। বাংলাদেশে একসময় এটি পুরোপুরি আমদানী নির্ভর ছিল। এ পর্যায়ে উদীয়মান শিল্প প্রতিষ্ঠান নাহী গ্র“প এই আমদানী নির্ভরতা কাটিয়ে উঠতে ২০১৩ থেকে এটি উৎপাদন শুরু করেছে। উৎপাদন আরো ব্যপক করতে প্রতিষ্ঠানটি ইতোমধ্যে শেয়ার মার্কেটেও এসেছে। নাহী গ্র“পের এলুমনিয়াম কম্পোজিট প্যানেলের ব্রান্ড নাম এলুকো টাইগার। 
মূলত এই প্যানেল সিট ভবনের বাইরে ব্যবহার হয়ে থাকে। সু-উচ্চ ভবনের বাইরে রঙ করা একটি জটিল এবং ঝুকিপূর্ণ কাজ। রং করা ভবন সাধারণত দু’এক বছর পরপর নতুন করে রং করতে হয়। এলুমনিয়াম কম্পোজিট প্যানেল একটানা ২০বছরের বেশি কালার অক্ষুণœ থাকে। রং বৈচিত্র থাকার কারণে এবং গ্লাসের সাথে অসাধারণ কম্বিনেশন হবার জন্য এসিপি এই যুগে ভবনকে বানিয়ে দেয় অভুতপূর্ব শিল্পকর্ম। কয়েক বছরের রংয়ের খরচ হিসেব করলে কম্পোজিট প্যানেল যথেষ্ঠ সাশ্রয়ী। এছাড়া রং এক প্রকার কেমিকেল যা পরিবেশের উপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলে এবং এধরনের রঙয়ের কারখানাও পরিবেশের জন্য ইতিবাচক নয়। রং করার পরও ওয়াল বৃষ্টিতে ভিজে ড্যাম হয়ে নষ্ট হবার ভয় থাকে। কম্পোজিট প্যানেল (এসিপি) পরিবেশ বান্ধব, তাপ প্রতিরোধক এবং রিসাইকেল করা যায়। এটি ব্যবহার করা ভবনে বাইরের তাপ ভেতরে আসতে পারে না। বৃষ্টির পানিতে ওয়াল নষ্ট হবার ভয় থাকে না। কাজেই ঐসব বিল্ডিংয়ে এসি ব্যবহার কম হয় এবং বিদ্যুৎ খরচ কমে আসে।
বাংলাদেশে প্লাস্টিকের অবাধ ব্যবহার এবং এর রিসাইকেল ব্যবস্থা না থাকায় এটি ক্রমেই দুশ্চিন্তার বিষয় হয়ে উঠেছিল। নাহী গ্রুপ দেশের পরিবেশ রক্ষায় প্লাস্টিক রিসাইকেল করে পুনরায় ব্যবহার করে পরিবেশ বান্ধব এই প্রডাক্টটি উৎপাদন শুরু করে। সারাদেশ থেকে পরিবেশের জন্য হুমকি হয়ে ওঠা প্লাস্টিক এলুমনিয়াম কম্পোজিট প্যানেলের মাঝখানে ব্যবহার হয়ে চলেছে । এসব কম্পোজিট প্যানেল এক সময় নষ্ট হয়ে গেলে বা ব্যবহার অনুপযোগী হয়ে গেলেও তা আবার রিসাইকেল করে উৎপাদনে কাঁচামাল হিসেবে ব্যবহৃত হবে। যেখানে রঙয়ের ক্ষেত্রে বিষয়টি অসম্ভব। 
বিল্ডিং প্রযুক্তিতে এটি সর্বশেষ প্রযুক্তি পণ্য। এটি বিশেষ করে হাইরাইজ ভবনের জন্য একটি জুতসই গ্রীন প্রডাক্ট। একটি পুরাণ ভবনেও যদি এটি ব্যবহার হয় সেটি হয়ে ওঠে নতুন এবং দৃষ্টি নন্দন। মুলত বাংলাদেশের মত উন্নয়নশীল দেশে নির্মাণ প্রযুক্তিতে অভিনব বিউটি প্রডাক্ট হিসেবে এটি উৎপাদন ও মার্কেটিং শুরু হয়েছে। একটি ভবনকে আভিজাত্য কর্পোরেট লুক তৈরি করে দেয় এলুমনিয়াম কম্পোজিট প্যানেল। এটি ব্যবহার হওয়া বসুন্ধরা কনভেনশ হল, যমুনা ফিউচার পার্ক, পলওয়েল মার্কেট প্রভৃতি ভবনের দিকে তাকালেই বিষয়টি স্পষ্ট হয়। শুধু ভবনের বাইরে নয় বরং চমৎকার কালার কম্বিনেশন হবার কারণে এটি ইন্ডিরিয়র ডিজাইন, ফলস এমনকি ভেতরের ওয়ালেও সম্প্রতি ব্যবহার শুরু হয়েছে। এই পণ্যের মার্কেট লিডার হিসেবে নাহী গ্রুপ ২০কালারের এলুমনিয়াম কম্পোজিট প্যানেল উৎপাদন করছে। আইপিওতে আসার পর ডিলার, গ্রাহকদের আশাব্যাঞ্জক সাড়া পাবার কারণে প্রতিষ্ঠানটি এ সংক্রান্ত আরো কিছু প্রডাক্ট সহ ২০-৩০টি কালার যুক্ত করবে বলে তারা জানিয়েছে ।
নাহী গ্রুপের এলুমনিয়াম কম্পোজিট প্যানেল সম্পর্কে বুয়েটের ইঞ্জিনিয়ার ড.নাফিস জানান, বিদেশি এলুমনিয়াম কম্পোজিট প্যানেলের চেয়ে নাহী’র এলুমনিয়াম কম্পোজিট প্যানেলের থিকনেস, কালার ফিনিশিং এবং অন্যান্য মান যথেষ্ট ভালো। বুয়েটের টেস্টে এসব বিষয় স্পষ্ট হয়েছে বলে তিনি জানান। বিষয়টি নিয়ে নাহী গ্রুপের ম্যানেজিং ডিরেক্টর জনাব ইঞ্জিনিয়ার আবু নোমান হাওলাদার বলেন, দেশের অর্থনীতি উন্নত করতে হলে শিল্প-কারখানা করতে হবে। আমাদের প্রতিটা শিল্প প্রতিষ্ঠানই দেশের উন্নয়নের সাথে সরাসরি যুক্ত। এপর্যায়ে আমরা আমদানি নির্ভরতা কমিয়ে ২০১৩ থেকে এদেশে উন্নত মানের এলুমনিয়াম কম্পোজিট প্যানেল উৎপাদন ও মার্কেটিং শুরু করেছি। বিদেশ থেকে আসা এসিপি’র এলুমনিয়ামের থিকনেস যেখানে ০.১৩-০.১৭ এমএম। আমাদের এসিপি’র এলুমনিয়ামের থিকনেস সেখানে ০.২৩ এমএম এর বেশি। নির্মাণ প্রযুক্তি খাতে গ্রীণ প্রযুক্তি উৎপাদনের সাথে দেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নে আমরা দায়িত্বশীল ভুমিকা পালনে সম্পৃক্ত। আমরা প্লাস্টিকের বড় আকারের রিসাইকেল প্রযুক্তির সমন্বয়ে নির্মাণ শিল্পে সর্বশেষ প্রডাক্ট এলুমনিয়াম কম্পোজিট প্যানেল উৎপাদন করছি। তিনি বলেন, বিনিয়োগে আমরা আইপিও’র মাধ্যমে সব শ্রেণীর বিনিয়োগকারীকে সম্পৃক্ত করতে উদ্যোগ নিয়েছি যাতে এর লভ্যাংশ সবাই ন্যায্য হারে পেতে পারে।   








অর্থ ও বাণিজ্য পাতার আরও খবর
আজকের রাশিচক্র
সম্পাদক : ইয়াসিন আহমেদ রিপন

ঝর্ণা মঞ্জিল, মাষ্টার পাড়া, মাইজদী, নোয়াখালী। ঢাকা: ৭৯/বি, এভিনিউ-১, ব্লক-বি, মিরপুর-১২, ঢাকা-১২২৬, বাংলাদেশ।
ফোন : +৮৮-০২-৯০১৫৫৬৬, মোবাইল : ০১৯১৫-৭৮৪২৬৪, ই-মেইল : info@bdhotnews.com