আবহাওয়া বিশ্বঘড়ি মুদ্রাবাজার বাংলা দেখা না গেলে                    
শিরোনাম :
হেয়ার স্কুলের প্রাপ্তন ছাত্র হিসেবে কলকাতার বিভিন্ন সড়কে জিয়াউর রহমানের ছবি      পলাতক আসামিকে ভারতে রেখে এলেন আ.লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও পিপি!      নেতাদের জনসম্পৃক্ততা ও তৃণমূলের সঙ্গে যোগাযোগ বাড়ানোর তাগিদ খালেদা জিয়ার      সড়ক দুর্ঘটনায় আহত এমপি গোলাম মোস্তফার অবস্থা আশঙ্কাজনক      ভারতের মানসী চিল্লার মাথায় বিশ্বসুন্দরীর মুকুট      যে কারণে রোহিঙ্গা ইস্যুতে মিয়ানমারের পক্ষে শক্ত অবস্থান নিয়েছে চীন      নির্বাচন নয় আরাকান চাই      
ভারতে যৌন নির্যাতনে নাম জড়িয়েছে যেসব ধর্মগুরুরা
Published : Saturday, 26 August, 2017 at 2:56 AM
ভারতে যৌন নির্যাতনে নাম জড়িয়েছে যেসব ধর্মগুরুরাআন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতের ধর্ম গুরুদের যৌন নির্যাতনে জড়ানোর অভিযোগ অনেক পুরোনো। ধর্ষণ মামলায় ভারতীয় ধর্মগুরু বাবা রাম রহিমকে দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় ভারতের বিভিন্ন স্থানে অগ্নিসংযোগ, কারফিউ এবং সহিংসতায় ইতিমধ্যে কমপক্ষে নিহত ৩১ জন নিহত ও কমপক্ষে ২৫০ জন গুরুতর আহত হয়েছে। বিভিন্ন স্থানে শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখতে পুলিশ গুলি চালাতে বাধ্য হচ্ছে। এই প্রেক্ষাপটে উঠে এসেছে ভারতের বিভিন্ন ধর্মগুরুর যৌন অপরাধের ইতিহাস। যদিও ধর্ম গুরুদের বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ অসংখ্য। এর মাঝে ৭ জন ভারতীয় বিখ্যাত ধর্ম গুরুর যৌন নির্যাতনের অভিযোগ ভারত জুড়ে বড় আলোচনার জন্ম দেয়।

ভারতে যৌন নির্যাতনে নাম জড়িয়েছে যেসব ধর্মগুরুরাগুরমিত রাম রহিমগুরমিত রাম রহিম: ২০০২-এ এক শিষ্যা রাম রহিমের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনে তত্কালীন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ীকে চিঠি লেখেন। চিঠিতে ওই শিষ্যা অভিযোগ করেন, অন্য শিষ্যাদেরও হরিয়ানার সিরসায় ডেরা চত্বরে একাধিক বার ধর্ষণ করেন। পঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্ট সিবিআইকে রাম রহিমের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা রুজু করতে নির্দেশ দেয়। গত শুক্রবার (২৫ আগস্ট) তাঁকে ধর্ষণ মামলায় দোষী সাব্যস্ত করা হয়।   

ভারতে যৌন নির্যাতনে নাম জড়িয়েছে যেসব ধর্মগুরুরাস্বামী গঙ্গেশানন্দস্বামী গঙ্গেশানন্দ: ধর্ষণের চেষ্টা করায় কেরলের তিরুঅনন্তপুরমে স্বামী গঙ্গেশানন্দ ওরফে হরি স্বামীর যৌনাঙ্গ কেটে নিয়েছিলেন এক তরুণী। ওই তরুণীর অভিযোগ ছিল, সাত বছর ধরে লাগাতার ওই স্বঘোষিত ধর্মগুরুর ধর্ষণের শিকার হতে হয়েছিল তাঁকে। হরি স্বামী নিজেকে কোল্লমের চাত্তাম্বি স্বামী আশ্রমের আবাসিক বলে দাবি করেছিলেন, যদিও পরে পুলিশ জানিয়েছে ওই আশ্রমের সঙ্গে তাঁর কোনও সম্পর্কই ছিল না।   

ভারতে যৌন নির্যাতনে নাম জড়িয়েছে যেসব ধর্মগুরুরাসন্ত স্বামী ভীমানন্দজী মহারাজসন্ত স্বামী ভীমানন্দজী মহারাজ: দেহব্যবসা চালানোর অভিযোগে উত্তরপ্রদেশের চিত্রকূটের শিব মুরাত দ্বিবেদী ওরফে স্বামী ভীমানন্দজি মহারাজকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ১৯৯৭ সালে লাজপত নগর থেকে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়।  

ভারতে যৌন নির্যাতনে নাম জড়িয়েছে যেসব ধর্মগুরুরানিত্যানন্দনিত্যানন্দ: একাধিক ধর্ষণ ও শ্লীলতাহানির অভিযোগে ২০১২ সালের জুনে বেঙ্গালুরুর আশ্রম থেকে ধর্মগুরু নিত্যানন্দকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এক তামিল নায়িকার সঙ্গে যৌন সম্পর্কের ভিডিও সামনে আসায় তাঁকে নিয়ে প্রবল বিতর্ক হয়। 

ভারতে যৌন নির্যাতনে নাম জড়িয়েছে যেসব ধর্মগুরুরাসন্ত রামপালসন্ত রামপাল: ধর্ষণ এবং শ্লীলতাহানির অভিযোগে ২০১৪ সালের নভেম্বরে হরিয়ানার সন্ত রামপালকে গ্রেফতার করে পুলিশ। নিয়মিতই তিনি শয্যাসঙ্গিনী বদল করতেন বলে পুলিশি তদন্তে উঠে আসে।

ভারতে যৌন নির্যাতনে নাম জড়িয়েছে যেসব ধর্মগুরুরাআশারাম বাপুআশারাম বাপু: মাকে ঘরের বাইরে বসিয়ে রেখে ১৬ বছরের মেয়েকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছিল স্বঘোষিত গুরু আশারাম বাপুকে। ২০১৩ সালের সেপ্টেম্বরে ইনদওরের আশ্রম থেকে ধরা পড়েন বাপু। ধর্ষণ, শ্লীলতাহানিতেও অভিযুক্ত তিনি। দোষী সাব্যস্ত হয়ে এখনও যোধপুরের জেলেই আছেন। মহিলা ভক্তদের ধর্ষণের অভিযোগে আশারাম বাপুর ছেলে নারায়ণ রাইকেও গ্রেফতার করা হয়। তিনিও জেলে।  

ভারতে যৌন নির্যাতনে নাম জড়িয়েছে যেসব ধর্মগুরুরাবাবা পরমানন্দবাবা পরমানন্দ: যৌন নির্যাতনের দায়ে গত ২৪ মে উত্তরপ্রদেশের বারাবাঁকির পুলিশ গ্রেফতার করে রাম শঙ্কর তিওয়ারি ওরফে বাবা পরমানন্দকে। অভিযোগ, বন্ধ্যাত্বের চিকিৎসার নামে মহিলাদের উপর যৌন নিপীড়ন চালাতেন তিনি। বেশ কয়েক জন মহিলা পরমানন্দের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন। তাঁর বারাবাঁকির আশ্রমে তল্লাসি চালিয়ে পর্ন মুভির সিডি, মহিলাদের অশ্লীল ভিডিও এবং অশ্লীল পত্রপত্রিকা উদ্ধার করে পুলিশ। 









আন্তর্জাতিক পাতার আরও খবর
আজকের রাশিচক্র
সম্পাদক : ইয়াসিন আহমেদ রিপন

ঝর্ণা মঞ্জিল, মাষ্টার পাড়া, মাইজদী, নোয়াখালী। ঢাকা: ৭৯/বি, এভিনিউ-১, ব্লক-বি, মিরপুর-১২, ঢাকা-১২২৬, বাংলাদেশ।
ফোন : +৮৮-০২-৯০১৫৫৬৬, মোবাইল : ০১৯১৫-৭৮৪২৬৪, ই-মেইল : info@bdhotnews.com