আবহাওয়া বিশ্বঘড়ি মুদ্রাবাজার বাংলা দেখা না গেলে                    
শিরোনাম :
নাগরিক সমাবেশে এমপিদের পোস্টার নিয়ে শো-ডাউন করল কর্মী-সমর্থকরা      আ,লীগ নেতা জাফরউল্যাহ'র পানামা পেপারসের পর বিএনপি নেতা মিন্টুর প্যারাডাইস পেপারস কেলেঙ্কারি      আত্রাইয়ে কালি মন্দিরের মূর্তি ভাংচুর      মার্কিন কংগ্রেসে উপস্থাপন করা হবে রোহিঙ্গাদের কাছ থেকে পাওয়া তথ্য       সমাবেশে না আসলে বেতন কাটা যাবে: বিএনপির মহাসচিব      সিএনজি চালকদের উবার ও পাঠাও বন্ধে কর্মসূচি দেওয়ায় ক্রুদ্ধ যাত্রীরা      কাঠালিয়ায় ইউএনও-পিআইও দ্বন্দ্বে চাল আত্মসাতের কাহিনী ফাঁস!      
নিরাপত্তা ব্যবস্থায় প্রশ্ন রেখে মাশরাফি ভক্তের মাঠে প্রবেশ
Published : Sunday, 2 October, 2016 at 4:44 AM
নিরাপত্তা ব্যবস্থায় প্রশ্ন রেখে মাশরাফি ভক্তের মাঠে প্রবেশনিজস্ব প্রতিবেদক: ক্রিকেট খেলায় ষ্টেডিয়ামের পুরো নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে প্রশ্নের মুখে রেখে মাশরাফির এক ভক্ত আজ প্রবেশ করেছে খেলার মাঠে। তার প্রবেশের সময় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী বাধা তৈরী করতে পারেনি। এই বিষয়ে সকল সমালোচনার তীর আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর দিকে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও চলছে সমালোচনা।
সাংবাদিক হিটলার এ হালিম তার ফেইসবুক আইডিতে এক ষ্ট্যাটাসে লিখেন, "বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ক্রিকেট খেলা চলাকালে দেখা যায় স্টেডিয়ামের নিরাপত্তা কর্মীরা মাঠের দিকে পেছন ফিরে দর্শকদের দিকে তাকিয়ে থাকে। এক বারের জন্যও মাঠের দিকে তাকায় না। গ্যালারিতে কে কি করে সেটাই খুঁটিয়ে দেখে।
আর আমাদের দেশে খেলা চলাকালে নিরাপত্তা কর্মীরা নিবিষ্টচিত্তে খেলা দেখে, দর্শকের আসনে বসে থাকে, মোবাইলে ছবি তোলে, গ্যাল্যারিতে বসে মাঠের খেলোয়াড়দের সঙ্গে সেলফি তোলায় মগ্ন থাকে। তাদের চোখ থাকে মাঠের দিকে, খেলার দিকে। সেই সুযোগে আজ যেমন মাঠে ঢুকে পড়ল একজন মাশরাফি প্রেমী। আগামী ম্যাচে হয়তো আরেকজন ঢুকবে।নাক উঁচু জাতের ইংলিশ ক্রিকেটাররা এখন ঢাকায়। তারা কি বিষয়টা ভালোভাবে নেবে?"

মাশরাফি ভক্তের মাঠে প্রবেশ বিষয়ে জানা যায়, মেহেদী, মারুফ, আসিফ ও আবীর, ওরা চার বন্ধু। চারজনই মাশরাফির ভক্ত। থাকেন সাভারে। শনিবার রাতে শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ-আফগানিস্তান তৃতীয় একদিনের ম্যাচ দেখতে এসেছিলেন সবাই মিলে। গ্যালারিতে পাশাপাশি বসেন তারা। খেলা চলাকালে তিন বন্ধু সংযত থাকলেও আবেগের বশে নিজের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন মেহেদী। তিনি দৌড়ে ঢুকে পড়েন মাঠে এবং ছুটে যেতে থাকেন মাশরাফির দিকে। এ সময় মাশরাফিও  কাছে পেয়ে ভক্তকে  জড়িয়ে ধরেন । ততক্ষণে ছুটে আসেন মাঠে কর্তব্যরত নিরাপত্তাকর্মীরা। তারা মেহেদীকে মাঠ থেকে বের করে নিয়ে যান।
নিরাপত্তা ব্যবস্থায় প্রশ্ন রেখে মাশরাফি ভক্তের মাঠে প্রবেশখেলা শেষে পুলিশ মেহেদীসহ তার বন্ধুদের মিরপুর মডেল থানায় নিয়ে যায়। মাশরাফির এই ভক্তদের পুলিশ হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।
চার যুবককে আটক করে থানায় নিয়ে যাওয়ার খবর পেয়ে ছুটে আসেন তাদের স্বজন ও অভিভাবকরা। স্বজনদের সঙ্গে আলাপ করে জানা যায়, মাশরাফি ভক্ত এই চার যুবকের বাড়ি সাভারে। এদের মধ্যে মেহেদী হাসান ইউনাইডেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির দ্বিতীয় সেমিস্টারের শিক্ষার্থী। তানভীর আহমেদ মারুফ ও আয়মান আসিফ রাফি এসএইচসি পাসের পর বর্তমানে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তির পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছেন। আর আবীর হোসেন ইস্ট-ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির ছাত্র।
মিরপুর থানার গেটের বাইরে অপেক্ষা করছেন মেহেদীর বাবা জয়নাল আবেদীন ও চাচা শ্যামল, মারুফের ভাই তানভীর, রাফির বাবা আখতারুজ্জামান। কিন্তু আটক যুবকদের সঙ্গে কাউকেই দেখা করতে দিচ্ছে না পুলিশ, এমনকি সাংবাদিকদেরও না। মেহেদীর বাবা জয়নাল আবেদীন জানান,  ‘মেহেদী আমার ছেলে । মারুফ, রাফি ও আবীর মেহেদীর বন্ধু। ওরা সবাই মাশরাফির ভক্ত। চারজন একত্রে খেলা দেখতে এসেছিল।’
মিরপুর মডেল থানার ডিউটি অফিসার উপ-পরিদর্শক (এসআই) অজিৎ রায় মেহেদী সম্পর্কে বলেন, ‘মেহেদীসহ চারজনকে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে।  ওসির কক্ষে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। সেখানে আরও সিনিয়র অফিসাররাও আছেন।’
মিরপুর জোনের এডিসি জসীম জানান,  ‘পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে জানিয়েছে, সে মাশরাফির ভক্ত। তবে সামনে যেহেতু ইংল্যান্ড ক্রিক্রেট দল ঢাকায় আসবে তাই তাকেসহ চার যুবককে আরও জিজ্ঞাসাবাদ করতে চায় পুলিশ। তারপর সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে তাদের ছেড়ে দেওয়া হবে কিনা।’
টিভির পর্দায় দেখা গেছে, বাংলাদেশের বোলিংয়ের ২৯তম ওভারের সময়ের ঘটনা। আফগানিস্তানের তখন সাত উইকেট নাই। রান মাত্র ১০২। হঠাৎ কোনও একজনের মাঠে ঢুকে পড়া চোখে পড়ে মাশরাফির। তিনি নিজেও প্রথমে ভড়কে গিয়েছিলেন। ওই তরুণ যখন হাত বাড়িয়ে দেয়, মাশরাফিও হাত বাড়ালেন। এরপর মুহূর্তেই তাকে বুকে জড়িয়ে নিলেন। ততক্ষণে হাফ ডজন নিরাপত্তাকর্মী ও মাঠের স্টাফরা ঘিরে ফেলেন ওই তরুণ ভক্তকে। দুজনে মিলে মাশরাফির বুক থেকে ওই তরুণকে টেনে বের করার আপ্রাণ চেষ্টা করলেন। কিন্তু কিছুতেই ছাড়ছেন না। নিরাপত্তাকর্মীদের অ্যাকশন দেখে মাশরাফি হয়তো আঁচ করতে পারলেন ওই তরুণের অবস্থা পরবর্তী সময়ে কী হতে পারে। তাই তিনি একটু পরিবেশটা হালকা করার চেষ্টা করলেন। তরুণটিকে নিজেই মাঠের বাইরে দিয়ে আসতে শুরু করলেন। যখন নিরাপত্তাকর্মীদের হাতে ছেড়ে দিলেন, তখনও সংশয় রয়ে গেল বাংলাদেশ অধিনায়কের মনে। সে কারণেই কিনা মাশরাফির অনুরোধে ওই ভক্তকে বসিয়ে রাখা হয় গ্র্যান্ড স্ট্যান্ডে।
তবে পুলিশ সূত্র জানায়,  ঘটনার পর ওই তরুণকে কড়া নজরদারিতে রেখেছিল পুলিশ। খেলা শেষে তাকেসহ মোট চারজনকে রাত ১০টার দিকে সোজা মিরপুর মডেল থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।
এরপর তাদেরকে রাত ১২.১০ মিনিটে পুনরায় স্টেডিয়ামে নিয়ে যায় পুলিশ  এবং রাত ১২.৪০ মিনিটে আবার থানায় নিয়ে আসা হয়। তবে আটক যুবকদের সঙ্গে কাউকেই দেখা করা বা কথা বলতে দেওয়া হয়নি।
এদিকে স্বজনরা থানায় আসলেও আটক যুবকদের সঙ্গে তাদের দেখা করার অনুমতি দেয়নি পুলিশ। পুলিশের পক্ষ থেকে তাদেরকে রবিবার সকালে থানায় আসতে বলা হয়েছে।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে মিরপুর থানার এক কর্মকর্তা জানান, মেহেদীসহ আটক চার যুবককে রবিবার আদালতে পাঠানো হবে।
আটক মেহেদী হাসান তার ফেসবুকে সর্বশেষ স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘অনলি বাংলাদেশি টাইগার্স আর রিয়াল। আজ  জিতেই বাসায় ফিরবো ইনশাল্লাহ।’ এই স্ট্যাটাসের সঙ্গে গ্যালারিতে বসা মেহেদী (গোলাপি শার্ট চোখে চশমা) ও তার তিন বন্ধুর একটি ছবিও পোস্ট করা হয়েছে। এই ছবির যুবকরাই যে আটক চার যুবক তা নিশ্চিত করেছেন মেহেদীর চাচা শ্যামল। তিনিও মেহেদীর আটকের খবর পেয়ে মিরপুর থানায় এসেছেন। 
এ বিষয়ে মিরপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুব রহমান জানান, ‘আমরা তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করছি। হঠাৎ মাঠে দৌড়ে প্রবেশের কারণ জানার চেষ্টা করছি।’
পৃথিবীর সকল দেশেই এমন পাগল ভক্ত থাকে। কিন্তু, এই বিষয়ে নিরাপত্তা রক্ষীরা থাকে সব সময় সতর্ক অবস্থায়। মাশরাফি ভক্তের কান্ডে নিরাপত্তা রক্ষীদের ব্যর্থতা চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে। ইংল্যান্ড দল যখন নিরাপত্তার অজুহাত তুলেছে,তখন এই বিষয়ে সর্বোচ্চ সতর্কতার প্রয়োজন ছিল। এখন যে কেউ বাংলাদেশের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে পারে। সবচেয়ে বড় বিষয়, পরবর্তীতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের খেলা দেখায় মনোযোগ না দিয়ে তাদের দায়িত্ব পালনে মনোযোগী হওয়া সময়ের দাবী।কেননা, তারা ষ্টেডিয়ামের ভিতরে খেলা দেখার জন্য নয়, বরং আইনশশৃঙ্খলা রক্ষায় নিয়োজিত করা হয়।







খেলাধুলা পাতার আরও খবর
আজকের রাশিচক্র
সম্পাদক : ইয়াসিন আহমেদ রিপন

ঝর্ণা মঞ্জিল, মাষ্টার পাড়া, মাইজদী, নোয়াখালী। ঢাকা: ৭৯/বি, এভিনিউ-১, ব্লক-বি, মিরপুর-১২, ঢাকা-১২২৬, বাংলাদেশ।
ফোন : +৮৮-০২-৯০১৫৫৬৬, মোবাইল : ০১৯১৫-৭৮৪২৬৪, ই-মেইল : info@bdhotnews.com